জন্মদিন হোক বা নিউ ইয়ার্স পার্টি, বেলুন ফাটানোর মজাই আলাদা। পার্টি নয়েজ মেকার হিসেবে বেলুন দারণ জনপ্রিয়। আশপাশের লোকজনকে খানিক চমকেও দেওয়া যায়। আর বাচ্চাদের পার্টি হলে তো কথাই ১০নেই। বেলুন ফাটানো তাদের দারুণ প্রিয়। যদি আপনার বাচ্চারও এই অভ্যাস থেকে থাকে, তা হলে এখনই সাবধান হওয়ার সময় এসেছে। কারণ গবেষকরা জানাচ্ছেন, বেলুন ফাটানোর আওয়াজ চিরকালের মতো নষ্ট করে দিতে পারে শ্রবণশক্তি।

কানাডার ইউনিভার্সিটি অব অ্যালবার্টার গবেষক বিল হজেস বলেন, ‘‘আমরা বাচ্চাদের বেলুন নিয়ে খেলতে বা আনন্দ করতে বারণ করছি না। তবে বেলুন ফাটাতে নিষেধ করছি। এতে শ্রবণশক্তি নষ্ট হবেই তার কোনও মানে নেই। কিন্তু যে কোনও পিলে চমকানো আচমকা আওয়াজ শ্রবণশক্তির উপর দীর্ঘকালীন প্রভাব ফেলতে পারে।’’

খুব জোরে আচমকা বেলুন ফাটালে তার আওয়াজের সঙ্গে কারও কানের একদম কাছে শটগানের আওয়াজের তুলনা করা চলে। ইয়ার প্রটেকশন, হাই-প্রেসার মাইক্রোফোন ও প্রিঅ্যামপ্লিফায়ার ব্যবহার করে গবেষকরা তিন ভাবে বেলুন ফাটিয়ে আওয়াজ পরীক্ষা করেন। প্রথম বার পিন ফুটিয়ে, দ্বিতীয় বার ফোলাতে থেকে যত ক্ষণ না ফেটে যায় ও তৃতীয় বার দু’হাতের চাপে। দেখা গিয়েছে বেলুন ফাটার শব্দ ১৬৮ ডেসিবল পর্যন্ত হতে পারে। যা ১২ গজ দূরত্বের শটগানের আওয়াজের থেকে ৪ ডেসিবল বেশি। দ্য কানাডিয়ান সেন্টার ফর অকুপেশনাল হেলথ অ্যান্ড সেফটি জানাচ্ছে ১৪০ ডেসিবলের বেশি আওয়াজ পর্যন্ত সহ্য করার ক্ষমতা থাকে আমাদের।কানাডিয়ান অডিওলজিস্ট জার্নালে এই গবেষণার ফল প্রকাশিত হয়েছে।