এই পর্যন্ত তার যতগুলো ছবি মুক্তি পেয়েছে, প্রত্যেকটিই পেয়েছে অপ্রত্যাশিত সাফল্য। শুরুটা করণ জোহরের ‘স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার’ থেকে। ২০১২ থেকে এখন পর্যন্ত ফ্লপ ছবি উপহার দেননি বরুণ ধাওয়ান। স্বাভাবিকভাবেই সমাজের প্রতি দায়িত্ব অনুভব করতে শুরু করেছেন তরুণ প্রজন্মের এই নায়ক। আর তাই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, সমাজের বার্তা রয়েছে যে সমস্ত ছবির কাহিনিতে, শুধু সেগুলোতেই অভিনয় করবেন বরুণ।এই মাসের ১০ তারিখ মুক্তি পেয়েছে বরুণ অভিনীত ‘বাদ্রিনাথ কি দুলহানিয়া’। বক্স অফিসে এখন পর্যন্ত ভালো ব্যবসা করেছে ছবিটি। মূল ভূমিকায় বরুণের সঙ্গে অভিনয় করেন আলিয়া ভাট। এই ছবিতে নারীদের স্বাবলম্বী হওয়ার বার্তা ছিল। ছবিটি সাফল্য পাওয়ার পর এমন ঘরানার ছবিতে আগ্রহী হয়েছেন বরুণ।

নায়ক বলেন, ‘বিনোদনের উদ্দেশ্যে নির্মিত ছবিতেই অভিনয় করা আমার মূল লক্ষ্য। তবে আমি আমার ছবির মাধ্যমে সমাজের উন্নতির জন্য বার্তা দিতে চাই। আমার ছবিতে এমন কিছু রাখতে চাই, যা দর্শক সিনেমা হল থেকে বাড়িতে নিয়ে যেতে পারেন এবং বিষয়টি নিয়ে দ্বিতীয়বার ভাবেন।’বাদ্রিনাথের সাফল্যের পর এই মুহূর্তে বাবা ডেভিড ধাওয়ানের পরিচালনায় ‘জুড়ুয়া ২’ ছবির কাজে ব্যস্ত আছেন বরুণ। এছাড়াও হাতে আছে ‘পিকু’ ছবির নির্মাতা সুজিত সরকারের একটি ছবি। সব মিলিয়ে বোঝা যাচ্ছে, খুব ঠাণ্ডা মাথায় ভেবে চিন্তেই সিনেমা হাতে নিচ্ছেন বরুণ।সূত্র- ডেকান ক্রনিকলস