সিরিজ নিয়ে উত্তেজনা ছিল তুঙ্গে। একের পর এক ঘটনায় উত্তেজনার পারদ কেবল উপরেই উঠেছে। পুনেতে প্রথম টেস্টে বিরাট কোহলি অতিরিক্ত আগ্রাসী মনোভাব নিয়ে বাকযুদ্ধে জড়িয়েছিলেন অজি অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথের সঙ্গে।এই ঘটনার পর সাবেক অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার ইয়ান হিলি রীতিমত ধুয়ে দিয়েছিলেন বিরাট কোহলিকে। কোহলিও কম যান না। সংবাদ সম্মেলনে উত্তর দিয়েছিলেন ইয়ান হিলির করা মন্তব্যর।এছাড়াও বেঙ্গালুরুতে দ্বিতীয় টেস্টে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়ার পর রিভিউ নিতে ড্রেসিংরুমের সাহায্য চেয়েছিলেন স্মিথ। এই ঘটনার পর স্মিথকে প্রতারক বলেছিলেন কোহলি। রাঁচি টেস্টে কোহলির কাঁধে চোট পাওয়া নিয়ে ব্যঙ্গও করেছিলেন অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটাররা।  

পুরো সিরিজ জুড়ে ব্যাট হাতে রান খরায় ভুগেছেন বিরাট কোহলি।এজন্য সাবেক ভারতীয় ও অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটারদের সমালোচনার শিকার হয়েছেন ২৮ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যান। উপরি পাওনা হিসেবে সইতে হয়েছে অস্ট্রেলিয়ান মিডিয়ার খোঁচা। একের পর এক বিতর্ক আর আলোচনা-সমালোচনার পর অবশেষে সমাপ্তি ঘটলো ভারত-অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার বোর্ডার-গাভাস্কার ট্রফির। শেষ হাসি হাসলো বিরাট কোহলির ভারত। আর এত কিছুর পর কোহলি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটারদের সঙ্গে বন্ধুত্ব না রাখার।তবে শত্রুতার সম্পর্কে একটু বন্ধুত্বের পরত দিতে চাইছেন অজি অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ। সিরিজ শেষ হওয়ার পর আইপিএল এর সতীর্থ আজিনকা রাহানেসহ পুরো ভারত দলকে বিয়ার পানের আহ্বান জানিয়েছেন স্মিথ। তবে ভারত দলের পক্ষ থেকে এখনো এ আহবানের সাড়া মেলেনি।